আশুলিয়ার বিভিন্ন দুকানে পঁচা ও দুর্গন্ধ যুক্ত গরুর মাংস বিক্রি করছে কিছু অসাধু ব্যাবসায়ি।

0
73
আশুলিয়ার বিভিন্ন দুকানে পঁচা ও দুর্গন্ধ যুক্ত গরুর মাংস বিক্রি করছে কিছু অসাধু ব্যাবসায়ি।

শামীম হোসেন ষ্টাফ রিপোর্টার: আশুলিয়া নিশ্চিন্তপুর এলাকার মোঃ আজিজ মন্ডল এর মার্কেটে দোকানদার মোঃ কবির হোসেন পিতা আব্দুল আওয়াল, গ্রাম কিশকপাটি, থানা-উজিরপুর,জেলা- বরিশাল কবির হোসেন বলেন আমি প্রায় দেড় বছর যাবৎ এই মার্কেটে গরুর মাংস বিক্রি করে আসছি, আমি বিভিন্ন যায়গা থেকে গরুর মাথা,কলিজা ও মাংস কিনে এনে বিক্রি করি, কবিরের নিকট জানতে চাইলে কোথা থেকে ক্রয় করেন তখন তিনি একটি ভাউচার দেখান, সেই ভাউচারের ঠিকানা মিরপুর ১ শাহ আলী মার্কেট, ভাউচারে নাম মোঃ হুমায়ুন ও মোবাইল নাম্বার পাওয়া গেলে হুমায়ুন কে ফোনে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন আমি কোন পচা মাংস দেইনি, দ্বিতীয় বার আবার ফোন দিলে হুমায়ুন বলেন

আমি নিজে কোন গরু জবাই করিনা আমি কিনে এনে বিভিন্ন যায়গা ছাপ্লাই দিয়ে থাকি। এতে বোঝা যায় এই মাংস ব্যাবসায়িরা একটা চক্র মরা ও পচা মাংসর সাথে কিছু ভালো মাংস মিশিয়ে গনো বসতি ও নিম্ন বিও্ব সাধারণ মানুষের মাঝে বিক্রি করছে এই ব্যাবসায়ি। আর সাধারণ মানুষ এই মাংস খেয়ে কলেরা, ডায়রিয়া সহ নানা রোগে আক্রান্ত হচ্ছে। গটনা স্হলে উপস্থিত থাকা অবস্থায় র‍্যাব 4 এ মুঠো ফোনে যোগাযোগ করার চেষ্টা করলে তাহা সম্ভব হয়নি পরে আশুলিয়া থানা এস আই সামিউল কে ফোনে জানালে সে আসতে চেয়ে পরে আর ফোন ধরেনি। তাই ভুক্তভোগী ক্রেতা ও এলাকার সাধারণ জনগণ বলেন এমন জগন্নতম ব্যাবসায়ি ও মার্কেট মালিকের কঠিন বিচার চাই, এ বিষয়ে মার্কেট মালিক

আজিজ এর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন আপনারা চলে জান আমি দুরে আছি পরে আপনাদের সাথে কথা বলবো। কেনোই বা পরে কথা বলতে চাচ্ছেন আজিজ, আর কি শুপারিস করবেন এই আজিজ, তাই এই ব্যাবসায়ি কবির এর সেল্টার দাতা কি আজিজ, তাহলে আজিজ আর কি কি কর্মকাণ্ডের সাথে জড়িত খতিয়ে দেখার জন্য প্রশাসনের নিকট হস্তক্ষেপ করেন সাধারণ জনগণ,এজন্য ভুক্তভোগীরা বলছেন এই জগন্যতম ব্যাবসায়ি কবিরের সাথে মার্কেট মালিক আজিজ কে আইনের আওতায় এনে কঠিন শাস্তির ব্যাবস্হা নেওয়া হোক।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here