ইন্দোনেশিয়ার আগুনে এক কোটি শিশু ঝুঁকিতে

0
5
ইন্দোনেশিয়ার আগুনে এক কোটি শিশু ঝুঁকিতে

ক্রাইম অনুসন্ধান ডেস্কঃ ইন্দোনেশিয়ায় কয়েক সপ্তাহ ধরে চলমান বনের আগুনে প্রচণ্ড বায়ু দূষণ সৃষ্টি হয়েছে। এতে স্বাস্থ্যসহ নানা ঝুঁকির মুখে পড়েছে ওই অঞ্চলের এক কোটির বেশি শিশু। এক-চতুর্থাংশ শিশুর বয়সই পাঁচ বছরের নিচে।শ্বাসপ্রশ্বাসের সমস্যাসহ শারীরিক নানা জটিলতার ভুক্তভোগী এসব শিশু। আগুনের ভয়াবহতা ও এর প্রভাব নিয়ে এই হুশিয়ারি জানিয়েছে জাতিসংঘ শিশু অধিকার সংস্থা ইউনিসেফ।মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে আগুনের এখনই ব্যবস্থা নেয়ার আহ্বান জানিয়েছে সংস্থাটি। প্রতিবছরের মতো এবারও আগুন ছড়িয়ে পড়ে ইন্দোনেশিয়ার সুমাত্রা ও বর্নিও দ্বীপের বনভূমিতে। আগুনের লেলিহান শিখা থেকে নির্গত হচ্ছে বিষাক্ত গ্রিনহাউস গ্যাস।এসব গ্যাস ছড়িয়ে পড়ছে মালয়েশিয়া, ফিলিপাইনসহ পুরো দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোয়। আগুন নিয়ন্ত্রণে কয়েক হাজার সেনা এবং পানি ছিটানো বিমান মোতায়েন করেছে জাকার্তা। এরপরও নিয়ন্ত্রণে আনা যাচ্ছে না আগুন।ব্যাপকভাবে দূষিত হয়ে পড়েছে ওই অঞ্চলের বাতাস। এ কারণে বাধ্য হয়ে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে স্কুল-কলেজ এমনকি ওই এলাকার একাধিক বিমানবন্দর।ইউনিসেফ বলেছে, সুমাত্রা দ্বীপ ও বর্নিওর কিছু অংশের প্রায় এক কোটি শিশু এখন ঝুঁকিতে রয়েছে। বিশেষ করে বেশি ঝুঁকিতে পাঁচ বছরের নিচের শিশুরা। অপরিণত ফুসফুসের কারণে ঠিকমতো শ্বাসপ্রশ্বাস নিতে ও ছাড়তে পারছে না এরা।সংস্থার মুখপাত্র দেবোরা কোমিনি বলেন, ক্রমবর্ধমান বায়ু দূষণ ইন্দোনেশিয়ার শিশুদের জন্য বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে উঠেছে।’এএফপি জানিয়েছে, বনভূমির আগুনের কারণে ইন্দোনেশিয়ার বায়ু দূষণ এমন মাত্রায় পৌঁছেছে যে, দিনের বেলা এর আকাশও লাল দেখা যাচ্ছে।জাম্বি নামে ওই প্রদেশের মেকার সারি গ্রামের বাসিন্দা ২১ বছরের তরুণী ইকা উলান্দারি শনিবার দুপুরে রক্তিম আকাশের বেশ কয়েকটি ছবি তুলে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে পোস্ট করেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here