তাহিরপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় ৬ জন আহত, টাকা ছিনতাই: থানায় লিখিত অভিযোগ

0
4
তাহিরপুরে প্রতিপক্ষের হামলায় ৬ জন আহত, টাকা ছিনতাই: থানায় লিখিত অভিযোগ

প্রতিনিধি,তাহিরপুর(সুনামগঞ্জ) সুনামগঞ্জের তাহিরপুরউপজেলায় শিশুদের জগড়াকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষের লোক জনের হামলায় ৬ জন আহত হয়েছে। আহতরা হলেন, খাসতাল গ্রামের মৃত দ্বীন ইসলামের ছেলে মোক্তার হোসেন(২৫), ফিরোজ মিয়ার ছেলে সাফজল হোসেন(১৮), আ: খালেক(২৯), একই গ্রামের দ্বীন ইসলামের ছেলে ফিরোজ মিয়া(১৮), মৃত ইব্রহিম মিয়ার ছেলে হযরত আলী(৩৮) ও মৃত ইদু মিয়ার ছেলে সালাম মিয়া(৪০), সুরুজ মিয়ার ছেলে মাসুক মিয়া(৩২)। এদের মধ্যে গুরুতর আহত সাফজল হোনেকে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে ও মোক্তার হোসেনকে তাহিরপুর সদর হাসপাতালে ভর্তী করা হয়। এবং অন্যান্য আহতদের প্রাথমিকভাবে চিকিৎসা দেওয়া হয়। পরে আজ ১৭ মে সোমবার

গুরুতর আহত মোক্তার হোসেনের আবস্থা অবনতি হলে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতাল থকে সিলেট উসমাণী মেডিকেল কলেজ হাসপতালে প্রেরণ করে। এ ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল শনিবার দুপুর ১২ টার সময় উপজেলার উত্তর বড়দল ইউনিয়নের বাদাঘাট খাসতাল রাস্তার নাছির উদ্দিনের বাড়ির সামেনের রাস্তার মোড়ে।এ ঘটনায় ব্যবসায়ী মাসুক মিয়া(অরুপে মাসুক সরদার) বাদি হয়ে ১৭ মে রোববার বিকালে তাহিরপুর থানায় ৯ জনের নাম উল্লেখ করে ও ৪/৫ জনের নাম অজ্ঞাত রেখে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করে। থানায় লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানাযায়, শিশুদের জগড়াকে কেন্দ্রকরে খাসতাল গ্রামের সুরুজ মিয়ার ছেলে মাসুক মিয়ার পরিবার ও একই গ্রামের মৃত ফালু মিয়ার ছেলে গোলাম মোস্তফা(৪৫)

ও গোলাম রব্বানী(৩৫) ও ইদ্রিছ মিয়ার ছেলে আবুল কালামের পরিবারের মধ্যে বেশ কিছুদিন যাবৎ বিরোধ চলে আসছিল। এরই জেরধরে গতকাল ১৬ মে রোববার দুপুর ১২ টার সময় মাসুক মিয়া ২ লক্ষ টাকার বালু বিক্রয় করে বাদাঘাট বাজার থেকে মোটর সাইকেল যোগে বাড়ি যাওয়ার পথ রোধকরে প্রতিপক্ষ আবুল কালাম, গোলাম মোস্তফা ও শিবলু মিয়াসহ ১০/১৫ জনের এক গ্রুপ তাকে মারধর করে মোটরসাইকে ভাংচুর করে। এবং এসময় তার সাথে থাকা বালু বিক্রির ২ লক্ষ টাকা ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

পরে এই খবর পেয়ে মাসুকের চাচাত ভাই খালেক , সাফজল ও তার ভাতিজা মোক্তার হোসেন আবুল কালাম, গোলম মোস্তফাকে জিজ্ঞেস করতে গেলে দুপুর ২ টার সময় আবুল কালাম , দ্বীতিয় দপায় গোলাম মোস্তফাসহ তার আত: স্বজন মিলে প্রায় ২০ জনের একটি গ্রুপ দেশীয় অস্ত্রসস্ত্র দিয়ে রমদা দিয়ে মোক্তর হোসেনের মাথার ডান পাশে কুপ দিয়ে ও লোহার রড দিয়ে

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here