ফাতেমা জাহান মিথ্যা মামলা থেকে বাচার আকুতিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন

0
15
ফাতেমা জাহান মিথ্যা মামলা থেকে বাচার আকুতিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন

মুসা মিয়া স্টাফ রিপোটারঃ রাজধানীর ভাটারা থানাধীন ফাতেমা জাহান গত ২অক্টোবর ২০১৯ইং তারিখে বাংলাদেশ ক্রাইম রিপোর্টার এসোসিয়েশ মিলনায়তনে ভূমিদস্যু এবং একাধিক মামলার আসামী আলাউদ্দিন মাসুমের মিথ্যা মামলা থেকে পরিত্রাণ পেতে সাংবাদিক সম্মেলন করেছেন। আমরা ভাটারা থানাধীন এর ভুক্ত ভোগি কয়েকজন বাসিন্দা ও এলাকাবাসী। আমর বিগত ৮/৯ বছর ধরে এক ভুমিদস্যু, দখলবাজ, মামলাবাজ, আলাউদ্দিন মাছুম এর অত্যাচারে অতিষ্ট, হয়ে এখন রাস্তায় বসে গেছি। এই আলাউদ্দিন মাছুম একের পর এক মিথ্যা ও হয়রানী মামলা দিয়ে আমাদের দিনের পর দিন হয়রানি করে আসছে,। আলাউদ্দিন এর হিংসার থাবা থেকে আমাদের ছেলে মেয়ে ও ছেলের বৌ, বাড়ির কাজের লোকেরাও বাচঁতে পারে নাই। সে থানায় ও কোর্টে সমান হারে একর পর এক মামলা দিয়ে আসছে। পুলিশ তদন্তে ফাইনাল রির্পোট পক্ষে দিলে আলাউদ্দিন মাছুম নারাজি দিয়ে সে মামলা, ডিবি, পিবিআই, সিআইডি তে নিয়ে হয়রানি করে আসছে। এইভাবে আলাউদ্দিন আমাদের প্রত্যেককে ২৫ থেকে ৩০টিরও বেশি মামলা ডুকে দিয়েছে। চুরি, ছিনতাই,তাকাতি,চাদাবাজি, হামলা, অপহরন,এবং এর সামনে কোন গঠনা ঘটলেও সে মামলায় আমাদের নাম ডুকিয়ে দেই। অতিতে এর বিরোদ্ধে একটি অনলাইন নিউজে অভিযোগ করলে সে তখন কাফরুল থানায় ৫৭ ধারায় মামলা দেয় এবং সঠিক কোন তদন্ত না করেই আদালতে আমাদের বিপক্ষে র্চাজসিট দেই। সে মামলাটিও এখন চলমান। এমনকি আলাউদ্দিন মাছুম এর ছেলেকে অপহরন করা হয়েছে সে মামলাটিও কাফরোল থানা সঠিক তদন্ত না করে র্চাজসিট দিয়েছে।

আলাউদ্দিন মাসুম সারাদিন র্কোট পারায় ঘুরে ঘুরে মানুষকে ভিন্ন ভাবে মামলা সাজিয়ে লিখে এবং সুযোগ বুঝে এখানেও আমাদের নাম ডুকিয়ে দেয় মামলাতে। আলাউদ্দিন মাসুম কোর্ট পাড়ায় ঘুরে ঘুরে আইন ও আদালত সম্পর্কে ভালো বুঝে ও কাকে কিভাবে হয়রানী করা যায় সে তা ভালো ভাবে আদায় করে নেয়। আলাউদ্দিন মাসুম এর কথা পুলিশ না শুনলে পুলিশের এস আই, ওসিদের বিরোদ্ধে আদালতে রিট পিটিশন করে। আলাউদ্দিন মাসুম যে একজন পাকা মামলা বাজ ও দখলবাজ তা আপনারা অনুসন্ধান প্রতিবেদন করলে ভালো ভাবে জানতে পারবেন। সে দাবী করে ফাতেমা জাহানের বসত বাড়ি, আলেয়া বেগমের বসতবাড়ি, অহিদা বেগম, এবি এম এনামুল হক, বদিউজজামান, লিটনগাজী,খলিলুর রহমান, এমাদুল মুন্সিসহ সকলের বাড়ি নাকি আলাউদ্দিনের মাসুম নিজের বাড়ি বলে দাবী করে। তারপরও কি আলাউদ্দিন মাসুম ভুমি দস্যু নয় ? এক ভন্ড প্রত্যরক, নাম আল্লাউদ্দিন মাসুদ পিতা –মৃত ইয়াকুব আলী , স্থায়ী ঠিকানা পিরোজপুর জেলার মঠবাড়ীয়া থানা-৯ নং সাফলেজা ইউনিয়নে, কিন্তু সে ঢাকার ৬৯২/এ ইব্রাহিমপুর এলাকায় বসবাস করলেও তার মামলায় একটি ভুয়া ঠিকানা ব্যবহার করছে ।

সেটি হলো ৬২৪/২ ইব্রাহিমপুর । প্রতারক আল্লাউদ্দিন মাসুম কখনো নিজেকে ভুয়া কর্ণেল,বিচারক ও থানা পুলিশে বড় কর্মকর্তা পরিচয় দেয় । এলাকার সাধারন মানুষকে জিম্মী করে রাখে । সবাইকে ভয়ভীতি দেখিয়ে বিভিন্ন ভাবে মামলা দিয়ে নির্যাতন চালায় । তার শিকার খোকন মিয়া তার বিরুদ্ধে মাঠবাড়িয়াতে ৫টি মিথ্যা মামলা ও ঢাকার ভাটারায় থানায় ৫টিসহ মোট ১০টি মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে । এমনকি তার অসুস্থ্য স্ত্রী বিরুদ্ধে ও মিথ্যা মামলা দিয়ে হয়রানি করছে । এছাড়া মিথ্যা মামলায় শিকার মোঃ খলিল মিয়া ও লিটন গাজী । যারা এই মামলার আসামী তারা কখনোই ঢাকার ভাটারা এলাকায় আসেনি । অথচ তারা ওই মামলায় আসামী হয়ে আদালত পাড়া ঘুরে বেড়াচ্ছে । এই প্রতারক আল্লাউদ্দিন মাসুম সে এফবিসিআইয়ের একজন সদস্য পরিচয় দিয়েও নানা প্রতারণা করে যাচ্ছে আমরা মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ও মাননীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর ও পুলিশের আইজিপিসহ সংশ্লিষ্টদের কাছে বিনীত ভাবে অনুরোধ করছি যে আমাদেরকে এই ভুমিদস্যু ও মামলা বাজ থেকে বাচাঁনোর জন্য ।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here