বৃষ্টির পানিতে থৈ থৈ টঙ্গী”

0
5
বৃষ্টির পানিতে থৈ থৈ টঙ্গী"
এস কে সানি স্টাফ: গাজীপুরের টঙ্গী অঞ্চলে মঙ্গলবার দুপুর থেকে মুষলধারে চলছে বৃষ্টি। এতে বিভিন্ন এলাকার সড়কে পানি জমে দুর্ভোগে পড়েন এলাকাবাসী। পানি অপসারণের ড্রেনগুলো সচল না থাকায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে বলে এলাকাবাসীর দাবি। কর্মব্যস্ত নগরবাসী চলাচলে অন্তহীন দুর্ভোগের শিকার হচ্ছেন। বিঘ্ন ঘটছে যানচলাচলেও টঙ্গীর স্টেশনরোড প্রধান সড়কে পানি জমে খাকায় বিভিন্ন জায়গায় তৈরি হয়েছে মরণ ফাঁদ।সরেজমিন দেখা যায়, ভারী বৃষ্টির কারণে দুপুর থেকেই টঙ্গীর বিভিন্ন অলিগলিসহ মূল সড়কে পানি জমেছে। অফিসগামী মানুষ নির্ধারিত স্থানে যাওয়ার জন্য রিকশা ঠিক করতে গেলে বাড়তি ভাড়া চাইছেন চালকরা, নিরুপায় হয়ে অনেককেই গুনতে হচ্ছে দ্বিগুণ ভাড়া। আবার অনেক যাত্রীর সঙ্গে দেখা যাচ্ছে ভাড়া নিয়ে রিকশা চালকদের সাথে কিছুটা বাকবিতণ্ডা। গাজীপুরের টঙ্গী অঞ্চল একটি শিল্প এলাকা, হাজারো খেটে খাওয়া মানুষের বসবাস এই শিল্প
নগরী টঙ্গীতে। ৫৭টি ওয়ার্ড নিয়ে গঠিত বৃহত্তম গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন। গাজীপুর সিটি কর্পোরেশনের ৫৫নং ওয়ার্ড এর
আওতাধীন পানি অপসারণের ড্রেনগুলো সচল না থাকায় বেহাল দশা টঙ্গী সরকারী হাসপাতাল ও টঙ্গী পূর্ব থানা। টঙ্গীর বিভিন্ন এলাকার অলিগলিতে বৃষ্টির পানি জমে থাকায় দূর্ভোগে এলাকাবাসী। এমন অবস্থায় ড্রেনেজ ব্যবস্থা সচল করার নেই কোন স্থানীয় জন-প্রতিনিধির উদ্যোগ। এদিকে টংগী ৫৬নং ওয়ার্ডের এলাকার অলিগলি ও সড়ক বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে গেছে। স্থানীয় কয়েকজন বাসিন্দা জানান, নির্বাচনের সময় প্রতিটি ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থীরা তাদের ইশতেহারে এলাকার উন্নয়নের মধ্যে ড্রেনেজ ব্যবস্থা ও সড়ক সংস্কারের কথা বলে থাকলে ও নির্বাচনের পর জনগণকে দেয়া তাদের সেই ওয়াদা ইশতেহারেই সীমাবদ্ধ
থেকে যায়।  এছাড়াও দুপুর থেকে টঙ্গীর স্টেশনরোড মহাসড়কে পানি জমে থাকায় বিঘ্ন ঘটছে যানচলাচলে ও সৃষ্টি হচ্ছে দীর্ঘ-
যানযটের। এছাড়াও বৃষ্টিতে বিভিন্ন জায়গায় জলবদ্ধতার জন্য বেশি দূর্ভোগে পড়তে হচ্ছে সাধারণ মানুষদের।
এছাড়াও টঙ্গী পূর্ব থানা ও ট্রাফিক বিভাগের পুলিশ কর্মকর্তাদের পোহাতে হচ্ছে চরম দুর্ভোগ। দায়িত্ব পালন করতে হচ্ছে হাটু পানিতে থেকে। টঙ্গী পূর্ব থানার ওসি তদন্ত জাহিদুল ইসলাম এর সাথে কথা হলে তিনি বলেন, গাজীপুর মেট্রো পলিটন পুলিশের একটি গুরুত্বপূর্ণ থানা হচ্ছে টঙ্গী পূর্ব থানা, বছরে ৯ মাস পানীর নিচে থাকে এই থানা গেইট। ফলে থানায় প্রবেশের সড়কটিতে খানাখন্দ হয়ে গেছে। সিটি করপোরেশনে কয়েক দফায় যোগাযোগ করেও কোন কাজ হয়নি।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here