ভূরুঙ্গামারীতে বাঁশঝাড়ে কন্যা সন্তানকে ফেলে পালিয়ে গেছে মা!

0
4
ভূরুঙ্গামারীতে বাঁশঝাড়ে কন্যা সন্তানকে ফেলে পালিয়ে গেছে মা!

হাফিজ সেলিম ,কুড়িগ্রামঃ কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারী হাসপাতালে সন্তান প্রসব করে সেই নবজাতককে বাঁশ ঝাড়ে ফেলে পালিয়ে গেছে মা। সংশ্লিষ্ট হাসপাতাল সুত্র জানায়, গত শুক্রবার খাদিজা খাতুন (৩৫) নামের এক গর্ভবতী গৃহবধু ওই হাসপাতলে সন্তান প্রসব জনিত সমস্যার কথা বলে ভর্তি হয়। ভর্তির রেকর্ড পত্র অনুযায়ী, খাদিজা খাতুন ভূরুঙ্গামারী উপজেলার সদর ইউনিয়নের গোপালপুর গ্রামের তহিদুল ইসলামের স্ত্রী । ভর্তির পর শনিবার সকাল ৮.৩০ মিনিটে হাসপাতালেই গৃহবধু নরমাল ডেলিভারির মাধ্যমে একটি সুস্থ কন্যা সন্তান প্রসব করে,তাৎক্ষণিকভাবে হাসপাতালে লোকজন শিশুটি’র নাম রাখে সুবর্ণা।গৃহবধুটির সন্তান প্রসবের পর হাসপাতালের সকলকে ফাঁকি দিয়ে কোন ছাড় পত্র না নিয়েই সন্তান সহ পালিয়ে যায় মা। এরপর শিশুসহ গৃহবধুকে বিভিন্ন জায়গায় খোঁজাখুঁজি করেও পাওয়া যায়নি। পরবর্তীতে শনিবার দুপুরে হাসপাতালের পিছনের একটি বাঁশ ঝাড়ে শিশুটির কান্নার আওয়াজ শুনে এলাকার লোকজন শিশুটিকে উদ্ধার করে আবারও হাসপাতালে ভর্তি করায়। শিশুটি বর্তমানে হাসপাতালের গাইনী বিভাগে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

এলাকাবাসীর ধারনা কন্যা সন্তান অথবা অবৈধ সন্তান হওয়ার কারনে কোন নিষ্ঠুর মা নিষ্পাপ ওই শিশুটিকে ফেলে পালিয়ে যেতে পারে । উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ এএসএম সায়েম জানান, শিশুটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে এবং আমি পুলিশকে অবহিত করেছি। কি কারনে ঐ মা এ ঘটনা ঘটিয়েছেন তা এখনও জানা যায়নি। শিশুটির প্রকৃত পরিচয় পাওয়া না গেলে সরকারী নির্দেশনা মোতাবেক প্রয়োজনিয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। এদিকে, নবজাতক শিশুকে বাঁশঝাড়ে ফেলে মা পালিয়ে যাওয়ার ঘটনায় এলাকায় চাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে। #

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here