লেবাননে গনতন্ত্রের মানসকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার ৭৩তম জন্মবার্ষিকী পালন।

0
9
লেবাননে গনতন্ত্রের মানসকন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার ৭৩তম জন্মবার্ষিকী পালন।

লেবানন প্রতিনিধি: লেবাননে জাঁকজমক ও আনন্দঘন পরিবেশে কেক কেটে, আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও বাংলাদেশের সফল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৭৩ তম জন্মদিন উদযাপন করেছে। বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ লেবানন শাখার কেন্দ্রীয় কমিটি।গত শনিবার ২৮ই সেপ্টেম্বর স্থানীয় সময় রাত ৯টায়, বৈরুতের রামেল বাইদা হোটেল চিনিতে জন্মদিনের অনুষ্ঠানটি অনুষ্ঠিত হয়। শুরুতেই পবিত্র কুরআন তেলাওয়াত ও জাতীয় সংগীত পরিবেশনের মধ্যে দিয়ে অনুষ্ঠান শুভ সুচনা করা হয়।অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে বক্তব্য রাখেন, সাবেক বাণিজ্য ও বিমান পরিবহনমন্ত্রী ও বর্তমান বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ কেন্দ্রীয় কমিটির পেসিডিয়াম সদস্য কর্নেল ফারুক খান।বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ লেবানন কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি বাবুল মুন্সীর সভাপতিত্বে ও সাংগঠনিক সম্পাদক আলমগীর ইসলাম এবং সহসভাপতি রুবেল আহমেদ যৌথ পরিচালনায়, প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, লেবাননে নিযুক্ত প্রবাসী বান্দব উপাধি পাওয়া মান্যবর রাষ্ট্রদূত আবদুল মোতালেব সরকার। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, সিনিয়র সহসভাপতি সুফিয়া আক্তার বেবী, সহসভাপতি রুবেল আহমেদ সহসভাপতি বাবুল মিয়া, সহসভাপতি রুহুল আমিন সাধারন সম্পাদক মশিউর রহমান টিটু, তরুন লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক সোহাগ খান, প্রচার সম্পাদক মহসিন মৃধা, দপ্তর সম্পাদক শাহীন মির্জা, আল বুরুজ শাখার সাধারন সম্পাদক লিটন মিয়া সহ আরো অনেকে।প্রধান অতিথির বক্তায় রাষ্ট্রদূত গনতন্ত্রের মানসকন্য জননেত্রী শেখ হাসিনাকে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়ে তিনি বলেন, শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সারাদুনিয়া আজ বাংলাদেশ প্রশংসিত ও সামুদ্রিত ।দেশের জন্য জীবনের ঝুঁকি নিয়েও তিনি অসীম সাহসিনীয়তা নিয়ে তার লক্ষ্য অর্জনের অভিচল থেকেছেন, আর তাই আমরা প্রধানমন্ত্রীর জন্য গর্বিত।এসময় তিনি আরও বলেন, গনতন্ত্রের মানসকন্যা দেশরত্ন জননেত্রী শেখ হাসিনা এভাবেই তার নেতৃত্ব দিয়ে বাংলাদেশকে বিশ্বের দরবারে আরও সম্মানের আসনে প্রতিষ্ঠিত করে সে কামনা করেন তিনি।অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রীর সুস্বাস্থ্যে ও দীর্ঘায়ু কামনায় বিশেষ মোনাজাত করা হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন ধর্মবিষয়ক সম্পাদক মতিউর রহমান।এছাড়া আরও উপস্থিত ছিলেন মো জাহাঙ্গীর আলম, মো কাজল, শুভ মুন্সি, শেখ জামাল, সিয়াম হাজারি, খোরশেদ আলম, শাহেদ খান, শেফালী আক্তার ও মো রিংকু এবং শ্রমিক লীগ, যুবলীগ, বিভিন্ন শাখার কমিটির নেতৃবৃন্দ সহ অসংখ্য মজিব সৈনিকরা উপস্থিত ছিলেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here