সরকারের প্রস্তাবিত সড়ক পরিবহন আইন বাতিল ৯ দফা দাবী বাস্তবায়নের লক্ষ্যে পরিবহন ধর্মঘট সফল করতে ফেনীতে সমন্বয় সভা

0
10
সরকারের প্রস্তাবিত সড়ক পরিবহন আইন বাতিল ৯ দফা দাবী বাস্তবায়নের লক্ষ্যে পরিবহন ধর্মঘট সফল করতে ফেনীতে সমন্বয় সভা

জহিরুল আলম কামরুল, ফেনী: সরকারের প্রস্তাবিত সড়ক পরিবহন আইন বাতিল ৯ দফা দাবিতে বাস্তবায়নের লক্ষ্যে আগামী ১২ ও ১৩ অক্টোবর আহূত পরিবহন ধর্মঘট সফল করতে ফেনীতে ৬ জেলার মালিক-শ্রমিকদের সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ফেনী শহরের ইউনিক কমিউনিটি সেন্টারে রবিবার সন্ধ্যায় ফেনী জেলা ট্রাক, মিনি ট্রাক ও কাভার্ড ভ্যান মালিক শ্রমিক সমন্বয় পরিষদের উদ্যোগে ফেনী, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর, কুমিল্লা, চাঁদপুর ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার মালিক শ্রমিকদের নিয়ে এই সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। ফেনী জেলা সড়ক পরিবহন মালিক গ্রুপের সভাপতি গোলাম নবীর সভাপতিত্বে আয়োজিত সমন্বয় সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ওসমান আলী। বিশেষ অতিথি ছিলেন পণ্য পরিবহন মালিক শ্রমিক সমন্বয় পরিষদের সদস্য সচিব তাজুল ইসলাম।

অন্যান্যের মাঝে বক্তব্য রাখেন, মালিক শ্রমিক সমন্বয় পরিষদের যুগ্ম আহবায়ক মনির তালুকদার, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনের উত্তর-পশ্চিম আঞ্চলিক কমিটির সভাপতি আবুল বাহার, গাজীপুর জেলা ট্রাক মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. আজাদ, মালিক শ্রমিক সমন্বয় পরিষদ কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম-আহবায়ক জাফর উদ্দিন, ট্রাকলরির চাঁদপুর জেলার সাধার সম্পাদক আবুল কালাম মন্টু,কুমিল্লা জেলা ট্রাক মালিক সমিতির সভাপতি মুসলিম মিয়া, কুমিল্লা জেলা ট্রাক মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আবদুস সালাম, কুমিল্লা জেলা কাভার্ড ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক তাজুল ইসলাম, নোয়াখালী জেলা ট্রাক মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক আজিজুল বাসার, নোয়াখালী জেলা মালিক গ্রুপের সভাপতি আবুল মনছুর, উত্তর চট্রগ্রাম ট্রাক মালিক সাধারণ সম্পাদক আসাদ উল্যাহ চৌধূরী, ফেনী জেলা পরিবহন সড়ক গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক গিয়াস উদ্দিন বুলবুল, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ইউনিয়ন সাংগঠনিক সম্পাদক আজম চৌধূরী, ফেনী জেলা ট্রাক কাভার্ড ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়নের সভাপতি মোহাম্মদ আলী ও সাধারণ সম্পাদক মো. আবু শাহীন প্রমূখ।

এ সময় বক্তারা বলেন, শ্রমিকদের রক্তের বিনিময়ে হলেও প্রস্তাবিত কালো আইন বাতিল করতে হবে। আগামী ১২ ও ১৩ অক্টোবর ৪৮ ঘন্টার ধর্মঘট সফল করতে সকল পর্যায়ের মালিক ও শ্রমিকদের রাজপথে নামার আহবান জানান। তারা আরো বলেন সরকার যেখানে শ্রমিক মালিকদের জন্য গাড়ি চালাতে পর্যাপ্ত ও মসৃণ সড়ক দিতে ব্যর্থ সেখানে শ্রমিকদের গলা টিপে ধরতে অবৈধ ও কালো আইন তৈরীর খসড়া প্রস্তুত করেছে। বাংলাদেশের শ্রমিকরা বেঁচে থাকতে সরকারের এই কালো আইন বাস্তবায়ন হতে দেয়া হবেনা। সারা বিশ্বের মানুষ যখন করোনায় ঘরবন্দি ছিল, তখন শ্রমিকরা নিজেদের ও পরিবারের সদস্যদের জীবনের মায়া ত্যাগ করে সাধারণ মানুষের জীবন সচল করতে পণ্য পরিবহন করেছে। সেখানে রাষ্ট্র শ্রমিকদের পুরুষ্কৃত না করে হাত-পা বাধার পাঁয়তারা করছে। সবাই ঐকবদ্ধ থেকে প্রস্তাবিত কালো আইন বাতিল করার আন্দোলনের দৃঢ় প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here